২৯ জানুয়ারি ২০২০

গুজরাত দাঙ্গায় মোদি নির্দোষ

নরেন্দ্র মোদি - ছবি : সংগ্রহ

বিরাট স্বস্তি পেলেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি। গুজরাত দাঙ্গা মামলায় ক্লিনচিট পেলেন নরেন্দ্র মোদি। ২০০২ সালে গুজরাতে দাঙ্গার ঘটনায় বুধবার মোদিকে ক্লিনচিট দিল নানাবতী-মেহতা কমিশন। গুজরাতের তৎকালীন মুখ্যমন্ত্রী মোদির পাশাপাশি অন্যান্য মন্ত্রীরও ক্লিনচিট দিয়েছে কমিশন। পরিস্থিতি সামলাতে পুলিশই ব্যর্থ ছিল বলে দাবি করেছে কমিশন।

উল্লেখ্য, ২০০২ সালের ২৭ ফেব্রুয়ারি গোধরা স্টেশনের কাছে সবরমতী এক্সপ্রেসে অগ্নিকাণ্ডে ৫৯ জন করসেবকের মৃত্যু হয়। এ ঘটনাকে ঘিরে পরবর্তী সময়ে অশান্ত হয়ে ওঠে গুজরাত। অশান্তির ঘটনায় ১ হাজার ১৬৯ জন মানুষ প্রাণ হারান। ওই সময় গুজরাতের মুখ্যমন্ত্রী পদে ছিলেন নরেন্দ্র মোদি।

গুজরাত দাঙ্গা সংক্রান্ত কমিশনের চূড়ান্ত রিপোর্ট এদিনই বিধানসভায় পেশ করা হয়। ৫ বছর আগে পূর্বতন মুখ্যমন্ত্রী আনন্দীবেন পটেলের কাছে এই রিপোর্ট জমা পড়েছিল।

২০০২ সালে দাঙ্গার পরই নানাবতী কমিশন তৈরি করেছিলেন তৎকালীন মুখ্যমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী। প্রথমে অবরসপ্রাপ্ত বিচারপতি কে জি শাহের নেতৃত্বে এক সদস্যের কমিশন ছিল। পরে ২ সদস্যের কমিশন গড়া হয়। যার চেয়ারম্যান পদে নিযুক্ত হন অবসরপ্রাপ্ত বিচারপতি জি টি নানাবতী। ২০০৪ সালের ৫ অগাস্ট কমিশনের শর্তাবলী সংশোধন করে এ ঘটনায় মুখ্যমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি ও অন্যান্য মন্ত্রী, আমলাদের ভূমিকার তদন্তের পথে হাঁটে গুজরাত সরকার। ২০০৮ সালে অবসরপ্রাপ্ত বিচারপতি কে জি শাহের মৃত্যুর পর কমিশনের দ্বিতীয় সদস্য হিসেবে নিযুক্ত হন অবসরপ্রাপ্ত বিচারপতি অক্ষয় মেহতা।
সূত্র : ইন্ডিয়ান এক্সপ্রেস


আরো সংবাদ