২৭ জানুয়ারি ২০২০

জামা মসজিদের ঘটনায় আদালতে তিরস্কৃত দিল্লি পুলিশ

জামা মসজিদের এই ভিড়কেই সহিংসতায় উস্কানি দেয়ার অভিযোগ হিসেবে দেখানো হয় চন্দ্রশেখরের বিরুদ্ধে। - ছবি : আনন্দবাজার পত্রিকা

ভারতে ভীম আর্মির প্রধান চন্দ্রশেখর আজাদের জামিনের শুনানিতে এ বার আদালতে তিরস্কৃত হল দিল্লি পুলিশ। আদালত জানিয়ে দিল, বিক্ষোভ দেখানো দেশের নাগরিকদের সাংবিধানিক অধিকারের মধ্যে পড়ে।

আজাদ বিনা অনুমতিতে জামা মসজিদে বিক্ষোভে নেতৃত্ব দিয়েছিলেন বলে অভিযোগ দিল্লি পুলিশের। কিন্তু এ দিন আদালত বলে, জামা মসজিদ কি পাকিস্তানে? আর হলেই বা কি, সেখানেও বিক্ষোভ দেখানো যায়।

সংশোধিত নাগরিকত্ব আইনের (সিএএ) বিরুদ্ধে জামা মসজিদে প্রতিবাদ মিছিল করা এবং সহিংসতায় মদত দেয়ার অভিযোগে প্রায় এক মাস ধরে জেলবন্দি চন্দ্রশেখর আজাদ। মঙ্গলবার দিল্লির তিস হাজারি কোর্টে তার জামিনের শুনানি চলছিল। সেখানে আজাদের বিরুদ্ধে বিনা অনুমতিতে বিক্ষোভ দেখানোর অভিযোগ তোলেন সরকারি আইনজীবী। জামা মসজিদে ধর্না নিয়ে সোশ্যাল মিডিয়ায় আজাদের একাধিক পোস্ট তুলে ধরেন তিনি। আজাদই হিংসায় মদত দিয়েছিলেন বলে অভিযোগও তোলেন।

কিন্তু তার মন্তব্য ধর্তব্যের মধ্যে আনেননি বিচারক কামিনী লউ। তিনি বলেন, ‘ধর্নায় বসার মধ্যে ভুল কী আছে? প্রতিবাদই বা ভুল হতে যাবে কেন? প্রতিবাদ করা, ধর্নায় বসা এ সব নাগরিকদের সাংবিধানিক অধিকারের মধ্যেই পড়ে।’

আজাদের সোশ্যাল মিডিয়া পোস্টে সহিংসতায় উস্কানি দেয়ার মতো কিছু বা অসাংবিধানিক কোনো বার্তা ছিল না বলেও সাফ জানিয়ে দেন বিচারক। তিনি বলেন, ‘কোথায় সহিংসতা? পোস্টগুলোতে ভুল কী আছে? কে বলেছে প্রতিবাদ করা যাবে না? সংবিধানটা পড়ে দেখেছেন?’

প্রতিবাদ বা বিক্ষোভ দেখাতে গেলে আগে থেকে অনুমতি নিতে হয় বলে সরকারি আইনজীবী যুক্তি দেখাতে গেলে, তাও খারিজ করে দেন বিচারক লউ। তিনি বলেন, ‘কীসের অনুমতি? বিক্ষোভ রুখতে বার বার ১৪৪ ধারা জারি করা চলে না বলে সুপ্রিম কোর্টও জানিয়ে দিয়েছে। সংসদের বাইরেও অনেককে বিক্ষোভ দেখাতে দেখেছি। তাদের মধ্যে অনেকেই আবার রাজনীতিক, মুখ্যমন্ত্রী। আপনারা এমন করছেন যেন জামা মসজিদ পাকিস্তানে। আর যদি পাকিস্তানেই হয়, তাহলে সেখানেও বিক্ষোভ দেখানো যায়। কারণ অবিভক্ত ভারতের অংশ ছিল পাকিস্তান।’

তবে জামা মসজিদে দাঁড়িয়ে আজাদ প্ররোচনামূলক মন্তব্যই করেছেন বলে পাল্টা দাবি করেন সরকারি আইনজীবী। তার ড্রোন ফুটেজও রয়েছে বলে জানান তিনি। সেগুলো আদালতে জমা দিতে বিচারকের কাছে সময় চান তিনি। আগামীকাল বিষয়টি নিয়ে ফের শুনানি হওয়ার কথা। তবে আজাদের দাবি, তার বিরুদ্ধে ভুয়া অভিযোগ আনা হয়েছে।

সূত্র : আনন্দবাজার পত্রিকা


আরো সংবাদ

জলবায়ু পরিবর্তনে ক্ষতিগ্রস্ত দেশের উন্নয়নে সম্মিলিত উদ্যোগ আহ্বান রাষ্ট্রপতির নতুন আইজিআর শহীদুল আলম ঝিনুক ডিএনএ পরীক্ষায় মজনুর ধর্ষণের আলামত মিলেছে : সিআইডি হাইকোর্টের দেয়া বেতন স্কেলের রায় পুনর্বহালের দাবি গ্রাম পুলিশের আমিন হুদা ও স্ত্রীর সম্পদ বিবরণী চেয়ে দুদকের নোটিশ জি কে শামীমের জামিন আবেদন নামঞ্জুর গর্ভের শিশুর লিঙ্গ পরিচয় প্রকাশে নিষেধাজ্ঞা চেয়ে রিট তাবিথ আউয়ালের প্রার্থিতা বাতিল চেয়ে রিট আ’লীগের বিদ্রোহী প্রার্থী ফজলুল বহিষ্কার করোনা প্রতিরোধে সব বন্দরে স্ক্যানার রয়েছে : স্বাস্থ্যমন্ত্রী টাইফয়েড, কলেরা অপুষ্টি মোকাবেলায় আন্তর্জাতিক সম্মেলন কাল শুরু

সকল