২০ ফেব্রুয়ারি ২০১৯

তামাবিল স্থলবন্দরে তল্লাশি নিয়ে বিজিবি-কাস্টমস সংঘর্ষ

তামাবিল স্থলবন্দরে তল্লাশি নিয়ে বিজিবি-কাস্টমস সংঘর্ষ - ছবি : নয়া দিগন্ত

সিলেটের তামাবিল স্থল বন্দরে ভারতে গমন ও বহির্গমন যাত্রীদরে ব্যাগ তল্লাশিকে কেন্দ্র করে বর্ডার গার্ড বাংলাদেশ (বিজিবি) ও কাস্টমস কর্মকর্তাদের মাঝে সংঘর্ষের জের ধরে ৫ জন আহত হয়েছে। আহতরা হলেন, সহকারী রাজস্ব কর্মকর্তা তুহিন চৌধুরী, মোস্তাফিজ, গাড়ি চালক রাকিব উদ্দিন, বিশ্বজিত ও সজল কান্তি।

বৃহস্পতিবার বিকেল থেকে বিজিবি ও কাস্টমস কর্মকর্তাদের মাঝে দফায় দফায় সংর্ঘষের এ ঘটনা ঘটে।

স্থানীয় ও কাস্টমস সূত্রে জানা যায়, বৃহস্পতিবার বিকেলে সিলেটের রাগীব রাবেয়া মেডিকেল কলেজের শিক্ষার্থী ও ভারতীয় নাগরিক শ্রী রোপেন, রবার্ট থারংসি ও মতি সরণ নামক তিনজন তামাবিল ইমিগ্রেশন দিয়ে বাংলাদেশে আসে। এ সময় তামাবিল জিরো পয়েন্টে বিজিবির চেকপোস্টে দায়িত্বরত সদস্যরা তাদেরকে তল্লাশি করতে যায়। এতে কাস্টমস র্কতৃপক্ষের লোকজন বাঁধা দিয়ে বিজিবি সদস্যদের উদ্দেশ্য করে বলেন, ইমিগ্রেশন দিয়ে গমন ও বহির্গমনকারী যাত্রীদের ব্যাগ শুধু কাস্টমস কর্তৃপক্ষের লোকজনরাই তল্লাশি করবে।

এ বিষয়টি নিয়ে তামাবিল কাস্টমস কর্মকর্তাদের সাথে বিজিবির সদস্যদের বাকবিতণ্ডার সৃষ্টি হয়। এক পর্যায়ে বিজিবি সদস্যরা জোড়র্পূবক ভারতীয় ওই তিন যাত্রীর ব্যাগ তল্লাশি করে তাদের কাছ থেকে তিন বোতল মদ পায়। এ সময় বিজিবি ও কাস্টমস এই দু'পক্ষের মাঝে বিরোধ দেখা দেয়। সৃষ্ট বিরোধ নিয়ে সন্ধ্যার পর উভয় পক্ষের মাঝে সংঘর্ষ বাধে। সংর্ঘষে কাস্টমস কর্তৃপক্ষের ৫ জন আহত হন। আহতদের মধ্যে সহকারী রাজস্ব কর্মকর্তা তুহিন ও মুস্তাফিজকে গুরুতর অবস্থায় হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। বাকী আহতদের স্থানীয়ভাবে প্রাথমিক চিকিৎসা দেওয়া হয়েছে।

এ ব্যাপারে তামাবিল স্থল বন্দরের রাজস্ব কর্মকর্তা শিপন কুমার দাস জানান, গমন ও বহির্গমন যাত্রীদের তল্লাশির নিয়ম না থাকলেও বিজিবির সদস্যরা জোড়পূর্বক কয়েকজন যাত্রীর ব্যাগ তল্লাশি করতে যায়। এতে কাস্টমসের লোকজন বাধা দিলে বিজিবির সদস্যরা তাদের উপর হামলা চালায়। এ নিয়ে বিরোধের জের ধরে সন্ধ্যার পর পুণরায় হামলা চালালে কাস্টমসের দুজন সহকারী রাজস্ব কর্মকর্তাসহ ৫জন আহত হয়।

এ প্রতিবেদন লেখা পর্যন্ত বর্তমানে পরিস্থিতি স্বাভাবিক রয়েছে। এ ব্যাপারে বিজিবির পক্ষ থেকে কারও বক্তব্য পাওয়া যায়নি।


আরো সংবাদ