২২ আগস্ট ২০১৯

সিলেটে ২৪ ঘণ্টায় নতুন ১৪ ডেঙ্গু রোগী ভর্তি

সিলেট ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে গত ২৪ ঘণ্টায় আরো ১৪ জন ডেঙ্গু আক্রান্ত রোগী ভর্তি হয়েছেন। চিকিৎসাধীন থাকা ৬ জন ছাড়পত্র নিয়ে বাড়ি ফিরেছেন। নতুন ভর্তি হওয়াদের মধ্যে ১ জন শিশু, ৩ জন মহিলা ও ১০ জন পুরুষ।

গত মঙ্গলবার সকাল ৯টা থেকে গতকাল বুধবার সকাল ৯টা পর্যন্ত ভর্তি হওয়ারা হচ্ছেন- মৌলভীবাজারের হাজীপুরের রুমী বেগম (১৫), ফেঞ্চুগঞ্জের নিজামপুরের নাজমিন নাহার (২১), সদরের মল্লিকা এলাকার আড়াই বছরের শিশু, গোলাপগঞ্জের ফুলবাড়ি এলাকার ইদ্রিস আলী (৫৫), কানাইঘাটের উমাইরমাটি এলাকার নজরুল ইসলাম (৩৫), সদরের কাজল হাওর এলাকার ইসফাক আহমদ (২৩), মৌলভীবাজারের কাগুরচিয়ার বিপুল দাস (৬২), জগন্নাথপুরের কুমারগাওর মো. নুর আলী (৩২), হবিগঞ্জের বাহুবলের সঞ্জয় দেবনাথ (২১), দিরাইর উত্তর চানপুরের নজরুল ইসলাম (২২), হবিগঞ্জের নবীগঞ্জের কালাম (৪০), বিশ্বনাথ নতুন বাজারের রায়হান ইসলাম (২০), হবিগঞ্জের মাধবপুরের ওমর ফারুক (১৮) ও দক্ষিণ সুরমার ভার্থখলার বকুল (১৮)।

ওসমানী হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ জানিয়েছেন, এই হাসপাতালে সর্বপ্রথম ডেঙ্গু আক্রান্ত হয়ে এক রোগী ভর্তি হন গত ৭ জুলাই। এরপর মাঝে-মধ্যে এক-দুজন করে ভর্তি হচ্ছিলেন। এখন পর্যন্ত ডেঙ্গু আক্রান্ত হয়ে ওসমানীতে এসেছেন ৫৯ জন। এর মধ্যে এক রোগীর স্বজনরা তাকে নিয়ে গেছেন ঢাকায়। আর ২০ জন চিকিৎসা নিয়ে সুস্থ হয়ে ফিরেছেন বাড়িতে। বাকি ৩৮ জন এখনও আছেন হাসপাতালে।

তবে শঙ্কার বিষয় হচ্ছে, প্রতিদিনই ওসমানীতে ডেঙ্গু রোগীর সংখ্যা বাড়তে থাকায় চিকিৎসার জন্য হাসপাতালে খোলা হয়েছে তিনটি ডেঙ্গু কর্ণার।
ডেঙ্গু আক্রান্ত রোগীদের বিশেষ নজরদারিতে চিকিৎসা দেওয়ার জন্য হাসপাতালের ভারপ্রাপ্ত পরিচালক মেডিসিন বিশেষজ্ঞ ডা. শিশির চক্রবর্তীকে প্রধান করে ১০ সদস্যের একটি কমিটি গঠন করা হয়েছে। ওই কমিটির সদস্যরা সার্বক্ষণিক রোগীদের চিকিৎসা দেওয়ার পাশাপাশি তাদের শারীরিক অবস্থার খোঁজ-খবর নিচ্ছেন।


আরো সংবাদ