১৮ নভেম্বর ২০১৯

শ্রীমঙ্গলে রিমান্ড শেষে কারাগারে ঢাকার কাউন্সিলর মিজান

আদালতে নেয়া হচ্ছে কাউন্সিলর মিজানকে - ছবি : নয়া দিগন্ত

দেশের চলমান দুর্নীতিবিরোধী অভিযানে গ্রেফতারকৃত ঢাকা উত্তর সিটি কর্পোরেশনের ৩২ নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর ও মোহাম্মদপুর থানা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক হাবিবুর রহমান মিজান ওরফে পাগলা মিজানকে মৌলভীবাজারের শ্রীমঙ্গল থানার অস্ত্র মামলায় পাঁচ দিনের রিমান্ড শেষে কারাগারে পাঠিয়েছেন আদালত।

আজ মঙ্গলবার পাঁচ দিনের রিমান্ড শেষে কাউন্সিলর মিজান আদালতে হাজির করে শ্রীমঙ্গল থানা পুলিশ। পরে শুনানি শেষে আদালত তাকে কারাগারে প্রেরণের নির্দেশ দেন।

এর আগে শ্রীমঙ্গল থানায় র‌্যাবের দায়ের করা অস্ত্র মামলার আইও’র সাত দিনের রিমান্ড আবেদনের প্রেক্ষিতে মৌলভীবাজার ২নং আমলি আদালতের বিচারক আব্দুল্লাহ মোহাম্মদ সালেহী পাঁচ দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেন।

শ্রীমঙ্গল থানার অফিসার ইনচার্জ মো: আব্দুছ ছালেক জানান, কাউন্সিলর মিজানকে শ্রীমঙ্গল থানায় দায়ের করা অস্ত্র মামলায় পাঁচ দিনের রিমান্ডে আনা হয়েছিল। রিমান্ড শেষে আজ তাকে আদালতে হাজির করা হলে আদালত কাউন্সিলর মিজানকে কারাগারে পাঠানোর নির্দেশ দেন।

উল্লেখ্য, গত ১১ অক্টোবর ভোররাতে শ্রীমঙ্গলের গুহ রোডের এক লন্ডন প্রবাসীর বাসা থেকে ক্যাসিনো কারবার ও দুর্নীতিতে অভিযুক্ত ঢাকা উত্তর সিটি কর্পোরেশনের ৩২ নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর ও মোহাম্মদপুর থানা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক হাবিবুর রহমান মিজান ওরফে পাগলা মিজানকে অস্ত্রসহ র‌্যাব-২ ও র‌্যাব- ৯ এর সদস্যরা আটক করেন। আটকের সময় তার কাছ থেকে একটি অবৈধ বিদেশি পিস্তল, ৪ রাউন্ড গুলি, একটি ম্যাগাজিন ও নগদ ২ লাখ টাকা উদ্ধার করা হয়।

এ ঘটনায় পরদিন ১২ অক্টোবর দুপুরে শ্রীমঙ্গল থানায় র‌্যাব-৯ শ্রীমঙ্গল ক্যাম্পের সিনিয়র ওয়ারেন্ট অফিসার মো: আবদুল জব্বার বাদী হয়ে তার বিরুদ্ধে অস্ত্র আইনে একটি মামলা করেন। আটকের পর ঢাকার মোহাম্মদপুর থানায় তার বিরুদ্ধে মানি লন্ডারিংয়ের অভিযোগে আরেকটি মামলা করা হয়।


আরো সংবাদ