২৫ ফেব্রুয়ারি ২০২০

সিএনজি থেকে অপহরণ করে দুই বান্ধবীকে গণধর্ষণ

পুলিশের হাতে আটক তিন ধর্ষক - ছবি : নয়া দিগন্ত

সিএনজি থেকে অপহরণ করে মৌলভীবাজারে দুই বান্ধবীকে গণধর্ষনের ঘটনায় তিনজন আটকে করেছে পুলিশ। আটককৃতরা আদালতে স্বীকারোক্তি মূলক জবানবন্ধি দিয়েছেন। বুধবার সকালে আটককৃত ৩ আসামিকে মৌলভীবাজার চীফ জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতে সোপর্দ করা হয়।

আদালতে ৩ আসামিই এঘটনায় জড়িত ছিল বলে স্বীকারোক্তি মূলক জবানবন্ধি দিয়েছেন। বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মোঃ আলমগীর হোসেন।

আটকৃতরা হলেন, উত্তর জগন্নাথপুর এলাকার ইসলাম মিয়ার ছেলে মুন্না মিয়া (২৫), আদরিছ মিয়ার ছেলে আকাশ মিয়া (২৫), ছুরুক মিয়ার ছেলে হুমায়ুন মিয়া (২৩)।

এঘটনায় দুই আসামী পলাতক রয়েছে। তারা হলেন- উত্তর জগন্নাথপুর এলাকার আব্দুল মুকিত (২২) ও ছুরুক মিয়ার ছেলে হাসান মিয়া (১৯)।

জানা যায়, গত মঙ্গলবার কলেজ থেকে বাড়ি ফেরার পথে মৌলভীবাজার প্রেসক্লাবের সামনে এসে একটি সিএনজিতে উঠলে কিছুক্ষণ পর ৪ যুবক ওই সিএনজি অটোরিক্সায় উঠে। সিএনজির পর্দা টেনে দুই বান্ধবীর হাত বেঁধে ফেলে। তাদেরকে মৌলভীবাজারের শেখ রাসেল ইনডোর ষ্টেডিয়ামের দক্ষিণ পাশে জঙ্গলের নির্জনস্থানে নিয়ে যায়। সেখানে তাদের মারধর করে মোবাইল ও টাকা ছিনিয়ে নিয়ে তাদেরকে পালাক্রমে ধর্ষণ করা হয়।

পুলিশ জানায়, দুই ভিকটিমকে কৌশলে ডেকে নিয়ে তাদের ইচ্ছার বিরুদ্ধে পালাক্রমে ধর্ষন করা হয়। এ সময় তাদের চিৎকারে স্থানীয় লোকজন আসলে ধর্ষণকারীরা পালিয়ে যায়।

মৌলভীবাজার মডেল থানা পুলিশ দ্রুত ঘটনাস্থলে উপস্থিত হয়ে ভিকটিমদ্বয়কে উদ্ধার করে মৌলভীবাজার সদর হাসপাতালে চিকিৎসার ব্যবস্থা করেন এবং ঘটনার সাথে জড়িত আলামত জব্দ করে পুলিশ।

এ নিয়ে মৌলভীবাজার মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মোঃ আলমগীর হোসেন বলেন, আসামিদের গ্রেফতার অভিযান অব্যাহত আছে। প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে আসামিরা ঘটনার সত্যতা স্বীকার করেছে। ভিকটিম বাদী হয়ে মৌলভীবাজার মডেল থানায় (মামলা নং-১৩, তাং-১৪/০১/২০২০) মামলা দায়ের করেছেন। আসামিদের আদালতে সোপর্দ করে হাজতে প্রেরণ করা হয়েছে।


আরো সংবাদ