১৯ সেপ্টেম্বর ২০১৯

বরিস জনসনের পূর্ব পূরুষ ছিলেন মুসলিম

বরিস জনসনের পূর্ব পূরুষ ছিলেন মুসলিম - সংগৃহীত

যুক্তরাজ্যের ক্ষমতাসীন কনজারভেটিভ দলের নেতা নির্বাচিত হয়েছেন বরিস জনসন। এতে করে যুক্তরাজ্যের নতুন প্রধানমন্ত্রীও হতে চলেছেন তিনি। বুধবার স্থানীয় সময় বিকেলে থেরেসা মে সরে যাওয়ার পর প্রধানমন্ত্রী হিসেবে দায়িত্ব নেবেন জনসন।

বরিস জনসনের মূল প্রতিদ্বন্দ্বী ছিলেন পররাষ্ট্রমন্ত্রী জেরেমি হান্ট। হান্টকে বড় ব্যবধানেই পরাজিত করেছেন জনসন। ৯২ হাজার ১৫৩ ভোট পেয়ে কনজারভেটিভ দলের নেতা নির্বাচিত হয়েছেন জনসন। হান্ট পেয়েছেন ৪৬ হাজার ৬৫৬ ভোট।

রয়টার্স জানিয়েছে, বুধবার বিকেলে বাকিংহাম প্যালেসে রানি এলিজাবেথের সাথে দেখা করে প্রধানমন্ত্রীর পদ থেকে আনুষ্ঠানিকভাবে সরে দাঁড়াবেন আগের প্রধানমন্ত্রী থেরেসা মে। এরপরই বরিস জনসনকে আনুষ্ঠানিকভাবে যুক্তরাজ্যের প্রধানমন্ত্রী হিসেবে নিয়োগ দেবেন রানি এলিজাবেথ। দায়িত্ব গ্রহণের পর ব্রিটিশ প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয় ও বাসভবন ১০ নম্বর ডাউনিং স্ট্রিটে প্রধানমন্ত্রী হিসেবে প্রথমবার বক্তব্য দেবেন জনসন।

ব্রিটেনের নতুন এই প্রধানমন্ত্রীর পূর্বপুরুষ ছিলেন মুসলিম। বরিস জনসনের প্রপিতামহ অর্থাৎ তার দাদার বাবার নাম ছিল আলী কেমাল। জাতিতে তুর্কি মুসলিম।

বিংশ শতাব্দীর গোড়ার দিকে আলী কেমাল প্রথমে একজন সাংবাদিক ছিলেন। পরে রাজনীতিতে যোগ দেন। অটোম্যান মন্ত্রিসভায় খুব কম সময়ের জন্য স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী হয়েছিলেন তিনি। ১৯২০ এর দশকে আলী কেমাল গণপিটুনিতে নিহত হন।

পত্রিকায় তার এক কলামে বোরকা পরা নারীদের চিঠির বাক্সের সাথে তুলনা করার পর প্রচণ্ড সমালোচনার মুখে পড়েছিলেন বরিস জনসন বাবার সূত্রে তার বংশের ইতিহাস জানতে, স্বজনদের সাথে দেখা করতে বরিস জনসন একবার তুরস্কে গিয়ে বেশ কিছুদিন ছিলেন।

তার মুসলিম হেরিটেজের কথা মাঝেমধ্যেই প্রকাশ্যে বলেন বরিস জনসন। । তবে সম্প্রতি বোরকা পরা নারীদের নিয়ে তার এক কটু মন্তব্যের পর তাকে মুসলিম বিদ্বেষী হিসাবে অনেক গালমন্দ শুনতে হয়েছে।


আরো সংবাদ