২২ নভেম্বর ২০১৯

ব্রেক্সিট বিলম্বের জন্য বরিসের দুঃখ প্রকাশ

ইউরোপীয় ইউনিয়ন (ইইউ) থেকে ব্রিটেনের বেরিয়ে যাওয়াসংক্রান্ত চুক্তি বিলম্বের জন্য টোরি দলের কাছে দুঃখ প্রকাশ করেছেন ব্রিটিশ প্রধানমন্ত্রী বরিস জনসন। যদিও তিনি এ জন্য পার্লামেন্টকেই দায়ী করেছেন। তাছাড়া আগামী ১২ ডিসেম্বর দেশটিতে অনুষ্ঠিত সাধারণ নির্বাচনে ব্রিটেনে ব্রেক্সিট পার্টির প্রধান নাইজেল ফারাজ প্রার্থী হবেন না বলে এরই মধ্যে সাফ জানিয়ে দিয়েছেন।

এদিকে নিজ কনজারভেটিভ পার্টির আইনপ্রণেতাদের কাছে দুঃখ প্রকাশ করে ব্রিটিশ প্রধানমন্ত্রী বলেন, ‘৩১ অক্টোবরের মধ্যে ইউরোপীয় ইউনিয়ন থেকে ব্রিটেনকে বের করে আনতে চায় গোটা দেশ। সে লক্ষ্যে পার্লামেন্টে হওয়া ভোটাভুটিতে অনেক আইনপ্রণেতাই আমাকে ভোট দিয়েছিলেন। যদিও আমি সেটি সফলতার সাথে করতে পারিনি, যা ভীষণ দুঃখজনক এবং একই সাথে ব্যথাদায়ক।’

রোববার স্থানীয় একটি গণমাধ্যমকে দেয়াকে সাক্ষাৎকারে বরিস জনসন বলেছিলেন, ‘এটা ভীষণ দুঃখজনক হলেও সবাই জানে ঘটনাটি ঠিক কেন ঘটেছে। মূলত সরকার এবং বিরোধী দলগুলোর মধ্যে ব্যাপক মতপার্থক্যের কারণেই এমন ঘটেছে।’ অপর দিকে একই দিন দেশটির গণমাধ্যম ‘বিবিসি নিউজের’ কাছে সাক্ষাৎকার দিয়েছেন ব্রেক্সিট পার্টির প্রধান নাইজেল ফারাজ। তিনি বলেছিলেন, ‘আসন্ন পার্লামেন্ট নির্বাচনে আমি প্রার্থী হতে চাচ্ছি না। এর চেয়ে বরং দলের হয়ে প্রধানমন্ত্রী বরিসের ব্রেক্সিট চুক্তির বিরুদ্ধে দেশব্যাপী প্রচারণা চালানোই উত্তম।’

তিনি আরো বলেন, ‘পার্লামেন্টে যাওয়ার চেয়ে ব্রিটেনের স্বার্থে ব্রেক্সিট চুক্তির বিষয়ে দেশব্যাপী প্রচারণা চালানোই ভীষণ গুরুত্বপূর্ণ; যা আমি করতে পুরোপুরি প্রস্তুত।’ সূত্র : গার্ডিয়ান।


আরো সংবাদ