২১ ফেব্রুয়ারি ২০১৯

ফিলিস্তিনিদের অধিকার চাওয়ায় সিএনএন থেকে বাদ

-

ফিলিস্তিনিদের জন্য পৃথক রাষ্ট্রের দাবিতে বক্তৃতা করায় এক রাজনৈতিক কন্ট্রিবিউটরের সাথে চুক্তি বাতিল করেছে মার্কিন টিভি চ্যানেল সিএনএন(ক্যাবল নিউজ নেটওয়ার্ক)। ফিলিস্তিনের প্রতি সংহতি দিবসে জাতিসঙ্ঘের এক অনুষ্ঠানে মার্ক ল্যামন্ট হিল নামের ওই কন্ট্রিবিউটর ইসরাইলে রাষ্ট্রীয় সন্ত্রাস ও জাতিগত নিধনের দায়ে অভিযুক্ত করেছিলেন। আর এ কারণেই তার ওপর ক্ষিপ্ত হয়েছে সিএনএন কর্তৃপক্ষ।

সিএনএনের এক মুখপাত্র বৃহস্পতিবার জানিয়েছেন, টেম্পল ইউনিভার্সিটির প্রফেসর হিলের সাথে তাদের প্রতিষ্ঠান আর চুক্তি বহাল রাখছে না। ইতোমধ্যেই তার সাথে চুক্তি বাতিল করা হয়েছে। তবে কি কারণে চুক্তি বাতিল করা হয়েছে সে বিষয়ে সিএনএন কোন বক্তব্য দেয়নি।তবে এডিএলসহ ইহুদিদের কয়েকটি সংগঠন ল্যামন্ট হিলের বক্তৃতার কড়া সমালোচনা করার পরই সিএনএন এই ব্যবস্থা নিয়েছে।

সিএনএনের নিয়মিত রাজনৈতিক ভাষ্যকারদের একজন ছিলেন ল্যামন্ট হিল। গত বুধবার জাতিসঙ্ঘে ফিলিস্তিনি সংহতি দিবসের বক্তৃতায় তিনি বলেছিলেন, সবার জন্য পৃথক সেক্যুলার রাষ্ট্র থাকা উচিত। তিনি আরো বলেছিলেন, ‘নদী থেকে সাগর পর্যন্ত’ ফিলিস্তিন মুক্ত করতে হবে। এর মাধ্যমে তিনি পুর্বে  জর্দান নদী থেকে পশ্চিমে ভূমধ্যসাগর পর্যন্ত ফিলিস্তিনি ভূখণ্ডের কথা বলেছেন।

ইহুদিদের সংগঠন এডিএল এই বক্তৃতার প্রতিবাদ করে বলেছ, নদী থেকে সাগর পর্যন্ত ফিলিস্তিন হওয়ার অর্থ ইসরাইল ধ্বংস হওয়া। এই এই সংগঠনটির প্রতিবাদের পরই সিএনএন তাদের কন্ট্রিবিউটরের তালিকা থেকে বাদ দিয়েছে মার্ক ল্যামন্ট হিলকে।

কন্ট্রিবিউটর বলা হয় যারা কোন সংবাদ মাধ্যমে চাকুরি না করেও চুক্তি ভিত্তিক রিপোর্ট করেন বা বিভিন্ন ইস্যুতে আলোচনায় অংশ নেন।

পরবর্তীতে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে এক পোস্টের মাধ্যমে প্রফেসর হিল বলেছেন, আমি ফিলিস্তিনের অধিকার চাইতে গিয়ে কারো ধ্বংস চাইনি। ইসরাইল, পশ্চিম তীর, গাজা উপত্যকাসহ সবার জন্য ন্যায় বিচার চেয়েছি। আমার বক্তৃতা ছিলো খুবই স্পষ্ট। তিনি বলেন, আমি ফিলিস্তিনিদের স্বাধীনতার দাবিকে সমর্থন করি। আর ইসরাইলের অন্যায়ের সমালোচনা করি।


আরো সংবাদ