২৫ আগস্ট ২০১৯

বিশ্বের সবচেয়ে দামি বিবাহবিচ্ছেদ, অ্যামাজন প্রতিষ্ঠাতার স্ত্রীর খোরপোশ ৩,৮০০ কোটি ডলার

বিশ্বের সবচেয়ে দামি বিবাহবিচ্ছেদ, অ্যামাজন প্রতিষ্ঠাতার স্ত্রীর খোরপোশ ৩,৮০০ কোটি ডলার - ছবি : সংগৃহীত

বর্তমানে বিশ্বের ধনীতম ব্যক্তি ই-কমার্স সংস্থা আমাজনের প্রতিষ্ঠাতা তথা সিইও জেফ বেজোস। তার বিবাহ বিচ্ছেদও হতে চলেছে বিশ্বের সবচেয়ে দামি। জেফের সঙ্গে ২৬ বছর ঘর করেছেন স্ত্রী ম্যাকেঞ্জি বেজোস। চলতি বছর জানুয়ারি মাসেই সেই সম্পর্কে ইতি টানার ঘোষণা করেছেন তিনি। খোরপোশ নিয়ে জল্পনা চলছিলই। অবশেষে জানা গেল তার অঙ্ক। দম্পতির হাতে থাকা আমাজনের মোট শেয়ারের ২৫ শতাংশ পাচ্ছেন ম্যাকেঞ্জি। যার বর্তমান বাজারদর, তিন হাজার ৮০০ কোটি মার্কিন ডলার। এর ফলে বিশ্বের চতুর্থ ধনীতম মহিলা হতে চলেছেন তিনি। সবচেয়ে অবাক করা বিষয় হলো, ইতিমধ্যেই নিজের সম্পত্তির অর্ধেক দান করার ঘোষণা করেছেন এই লেখিকা।

১৯৯৪ সালে সিয়াটলের একটি গ্যারাজে আমাজন শুরু করেছিলেন জেফ। ঠিক তার আগের বছর ম্যাকেঞ্জির সঙ্গে বিবাহ বন্ধনে আবদ্ধ হয়েছিলেন তিনি। চার সন্তানও রয়েছে তাদের। গত এপ্রিল মাসে তাদের বিবাহ বিচ্ছেদ চূড়ান্ত হয়েছে। খোরপোশের অঙ্ক হাতবদলের জন্য ৯০ দিনের সময়সীমা দেয়া হয়েছিল। চলতি সপ্তাহে সেই সময় শেষ হচ্ছে। এর মধ্যেই শেয়ার হস্তান্তরের প্রক্রিয়া সম্পন্ন করা হবে বলে জানা গেছে।
কিন্তু তারপরও ১১ হাজার ৮০০ কোটি মার্কিন ডলার সম্পত্তি নিয়ে বিশ্বের ধনীদের তালিকায় এক নম্বরেই থাকছেন জেফ। আমাজনের মোট শেয়ারের মাত্র ৪ শতাংশ যাচ্ছে ম্যাকেঞ্জির হাতে। তিনিও স্বেচ্ছায় নিজের শেয়ারের ভোটের নিয়ন্ত্রণ জেফের উপরেই ছেড়ে দিয়েছেন। ফলে নিজের সংস্থায় কর্তৃত্ব হারাচ্ছেন না তিনি।
পাশাপাশি স্ত্রীর অধিকারে থাকা ওয়াশিংটন পোস্ট, বেসরকারি মহাকাশ সংস্থা ব্লু অরিজিনের শেয়ার যাচ্ছে আমাজন কর্তার ঝুলিতে।

এদিকে, কপর্দকশূন্য না হওয়া পর্যন্ত নিজের বিপুল সম্পত্তি দান করবেন বলে প্রতিশ্রুতি দিয়েছেন ম্যাকেঞ্জি। দুই ধনকুবের ওয়ারেন বাফেট এবং বিল গেটসের স্বেচ্ছাসেবী সংস্থা ‘দ্য গিভিং প্লেজ’-এর একটি ব্লগে একথা জানিয়েছিলেন তিনি। বিশ্বব্যাপী ধনকুবেরদের মানব কল্যাণে অর্ধেকের বেশি সম্পত্তি দান করার বিষয়ে উৎসাহিত করাই এই সংস্থার কাজ। প্রাক্তন স্ত্রীর এই সিদ্ধান্তকে সমর্থন জানিয়েছেন জেফ। এই নিয়ে ম্যাকেঞ্জির জন্য গর্বিত বলেও ট্যুইটারে জানিয়েছেন তিনি।


আরো সংবাদ